দির্ঘদিনের দাবি স্থায়ী ব্রিজ না থাকায় চরম সমস্যার মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছে গ্রামবাসীরা।

0
42

রেখা রায়, উত্তর দিনাজপুর,৮মার্চ; ভোট আসে ভোট যায় কিন্তু দির্ঘদিনের দাবি স্থায়ী ব্রিজ না থাকায় চরম সমস্যার মধ্য দিয়ে দিন কাটাচ্ছে।বিশেষ করে বর্ষাকালে চলাচল বন্ধ হয়ে যায় ব্রীজ না থাকায় উত্তর দিনাজপুর জেলার চোপড়া ব্লকের ভেরভেরী, ধামারগছ সহ ৫-৬ টি গ্রামের বসবাস কারি মানুষেরা। এই গ্রামের তিনদিক দিয়ে ডক ও বেরং নদী বয়ে যাওয়ার কারণে এই এলাকা পুরোপুরি ভাবে চোপড়া ও কালাগছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। সহজে যাতায়াতের জন্য একমাত্র পথ নদী পাড়ি দিয়ে যাতায়াত। কিন্তু শীতকালে জল কম থাকায় বাঁশের সাঁকো দিয়ে পারাপার করা গেলেও বর্ষাকালে ভয়ংকর রূপ নেয় এই নদী গুলি। তখন যাতায়াতের একমাত্র অবলম্বন হয় নৌকা। ছাত্র ছাত্রী, অসুস্থ মানুষদের নদী পারাপার করতে ভীষণ সমস্যায় পড়তে হয় তাদের। স্থানীয় প্রশাসন থেকে শুরু করে নেতা মন্ত্রীদের কাছে বারবার আবেদন করেও মেলেনি কোনো সুরাহা। দু তিনবার মাটি পরীক্ষা করায় আশার আলো দেখতে পেলেও তার পরে আর কোনো কিছু নজরে পড়েনি বলে জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দা মহঃ আনারুল। তিনি বলেন আমাদের একটাই দাবি ব্রীজ চাই। দু টাকা কেজি চালের প্রয়োজন নেই, আমরা খেটে খেতে পাড়ি। দরকার শুধু ব্রীজ। যদিও চোপড়া পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি আজাহার উদ্দিন জানান ভেরভেরী এলাকার মানুষদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল ব্রীজের। তাদের দাবিকে প্রাধান্য দিয়ে ইতিমধ্যেই স্থানীয় বিধায়ক হামিদুল রহমান বারংবার এই ব্রীজের দাবিতে দরবার করেছেন নবান্নে। নির্বাচন ঘোষণার কারণে এখন সব বন্ধ রয়েছে। নির্বাচনের পর এই ব্রীজের কাজ শুরু করার জন্য প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আমরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here