শারদীয়ার প্রাক্কালে গরীব দুঃস্থ মানুষদের নতুন বস্ত্র ও চাল, ডাল,আটা সহ অন্যান্য সামগ্রী বিলি।

    0
    123

    বাবাই সূত্রধর,গঙ্গারামপুর,দক্ষিণ দিনাজপুর,১৮অক্টোবর; শারদীয়ার প্রাক্কালে গরীব দুঃস্থ মানুষদের নতুন বস্ত্র ও চাল, ডাল,আটা সহ অন্যান্য সামগ্রী দিয়ে তাদের পাশে দারোলো কল্যাণী গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজ ও ভারত জাকাত মাঝি পরগনার মহল।রবিবার দুপুরে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর ব্লকের কালদিঘি এলাকায় বহু মানুষদের এই সাহায্য তুলে দেওয়া হয়।  যেখানে ভারত জাকাত মাঝি পরগনা মহলের কর্মকর্তারা  থানার অফিসার সহ আরো অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। সাহায্য পেয়ে খুশি এলাকাবাসীরা।
                    করোনার আতঙ্কে গত কয়েক মাসে সাধারণ মানুষের কর্মজীবন অতিষ্ঠ হয়ে ওঠেছে।এই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেই  বাঙালির সবচেয়ে বড়ো উৎসব দূর্গা উৎসব শুরু হতে চলেছে।কিন্তু এমন বহু পরিবারের কর্তারা রয়েছে যারা করোনা পরিস্থিতে নিজেদের কর্মজীবন থেকে বিরত রয়েছেন,ফলে এবার পুজোয় তাদের পরিবারের সদস্যদের মুখে হাসি ফুটাতে হিমশিম খাচ্ছেন তারা।এই সমস্ত পরিবারের কথা ভেবে করোনা আবহের মধ্যেই ,শারদীয়ার প্রাক্কালে কল্যাণী গ্রুপ অফ ইন্ডাস্ট্রিজ ও ভারত জাকাত মাঝি পরগনা মহল এর যৌথ উদ্যোগে গঙ্গারামপুর ব্লকের  কালদিঘি এলাকায় প্রায় ৭০০জন গরীব দুঃস্থ মানুষদের হাতে বস্ত্র সহ চাল, ডাল, আটা,দিয়ে তাদের সাহায্য করা হলো।যেখানে উপস্থিত ছিলেন ভারত জাকাত মাঝি পরগনা মহলের উত্তর বঙ্গের সভাপতি বাপি সরেন,সহ সভাপতি অরুণ কুমার হাঁসদা ,গঙ্গারামপুর থানার আইসি সাহেবের প্রতিনিধি অফিসার সহ আরো অনেকেই।এমন সময় দুঃস্থ অসহায় মানুষদের পাশে দাড়ানোই তাদের মুখে একটু হলেও হাসি ফুটবে বলে মনে করছেন  উদ্যোক্তারা।

    এবিষয়ে উত্তরবঙ্গ জাকাত মাঝি পরগনা মহলের সভাপতি বাপি সরেন ও সহ সভাপতি অরুণ কুমার হাঁসদা জানিয়েছেন,দূর্গা পূজার প্রাক্কালে গরীব দুঃস্থ মানুষদের নতুন বস্ত্র ও চাল, ডাল,আটা সহ অন্যান্য সামগ্রী প্রায় ৭০০ জনকে দিয়ে তাদের সাহায্য করা হলো। আশা করছি দূর্গা পূজার  আগে  এমন সাহায্য   তাদের মুখে কিছুটা হলেও হাসি ফুটবে।

    এদিন নতুন বস্ত্র ও চাল, ডাল,আটা পেয়ে খুশি হয়ে এক মহিলা প্রাপক জানিয়েছেন,দূর্গা পূজার আগে নতুন বস্ত্র ও খাদ্য সামগ্রী পেয়ে আমরা খুব আনন্দিত ।ধন্যবাদ জানাই উদ্যোক্তাদের।

    LEAVE A REPLY

    Please enter your comment!
    Please enter your name here