নির্মল বাংলার গড়ার উদ্দেশে বাড়ি বাড়ি প্লাস্টিক ডাস্টবিন বিলি।

0
129

রেখা রায়,উত্তর দিনাজপুর,২৩নভেম্বর;

নির্মল বাংলার গড়ার পাশাপাশি পুর এলাকাকে নির্মল গড়ে তোলার লক্ষ্যে অপচনশীল বজ্য প্রক্রিয়াকরনের মাধ্যমে ইট ও জৈব সার তৈরির পরিকল্পনা রুপায়নের লক্ষ্যে উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ শহরবাসীর বাড়ি বাড়িতে প্লাস্টিকের ডাস্টবিন তুলে দেবার কাজ শুরু করলো পুরসভা। সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজম্যান্ট প্রকল্পের অধিনে বাড়ি বাড়ি এই ডাস্টবিন তুলে দেবার সূচনা হল। এদিন কালিয়াগঞ্জ পুরসভায় এক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে এই ডাস্টবিন বিতরন কর্মসূচীর সূচনা করেন পুর প্রশাসক কার্তিক পাল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রশাসক মন্ডলীর সদস্য বসন্ত রায়, পুর নির্বাহী অফিসার আশুতোষ বিশ্বাস, ফিনান্স অফিসার ছট্টু আগরওয়ালা, পুর স্যানিটারি ইন্সপেক্টর সুরজিত কৈরী, প্রাক্তন কাউন্সিলার অমিত দেবগুপ্ত প্রমুখ। পচনশীল এবং অপচনশীল, এই দু’ধরনের বজ্য যত্রতত্র ফেলে না দিয়ে তা পুরসভার জঞ্জাল সাফাই বিভাগের কর্মীর হাতে তুলে দেবার জন্য এদিন একজোরা ডাস্টবিন শহরবাসীর হাতে তুলে দেবার কালিয়াগঞ্জ পুরসভা। বালতি আকারের ঢাকনা যুক্ত এই প্লাস্টিকের ডাস্টবিনে বাড়ির জঞ্জাল তুলে রাখতে হবে। প্রতিদিন সকালে গিয়ে যা সংগ্রহ করে নিয়ে আসবে পুরসভার সাফাই বিভাগের ভ্যান বা গাড়ির কর্মীরা। এই পচনশীল এবং অপচনশীল বজ্য প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে তৈরি করা হবে জৈব সার ও ইট। জঞ্জাল প্রক্রিয়াকরণের মাধ্যমে তৈরি হওয়া জৈব সার কৃষকদের চাষের কাজে ব্যবহার হবে। অন্যদিকে এই প্রকল্পে যে ইট তৈরি হবে, তা পুরসভার নিজস্ব নির্মান কাজে লাগানো হবে। সোমবার ডাস্টবিন বিতরনের পর কালিয়াগঞ্জের পুর প্রশাসক কার্তিক পাল জানান এটা রাজ্য নগরোন্নয়ন দপ্তরের সলিড ওয়েস্ট ম্যানেজম্যান্ট প্রকল্প। রাজ্যের অন্যান্য পুরসভার মতো কালিয়াগঞ্জ পুরসভায় এই প্রকল্প নিয়েছে রাজ্য নগরোন্নয়ন শাখা। মানব সভ্যতার বিকাশের সঙ্গে বজ্য নিয়ে সমস্যা ক্রমশ বাড়ছে। শহরাঞ্চলের ঘিঞ্জি এলাকায় এই বজ্য তথা জঞ্জাল যন্ত্রণা একটি বড় সমস্যা। এই পরিকল্পনায় সামিল করা হয়েছে কালিয়াগঞ্জ পুরসভাকে।তারি লক্ষ্য নিয়ে ধাপে ধাপে এই প্রকল্প রূপায়নের কাজ শুরু হল বাড়ি বাড়ি প্লাস্টিকের জোরা ডাস্টবিন বিতরনের মাধ্যমে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here