পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে অ্যাসিড ছুঁড়ে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।

0
226

বাবাই সূত্রধর, গঙ্গারামপুর, দক্ষিণ দিনাজপুর,২০ফেব্রুয়ারী; পারিবারিক বিবাদের জেরে স্ত্রীকে অ্যাসিড মেরে খুনের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে।চাঞ্চল্য ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ দিনাজপুর জেলার গঙ্গারামপুর থানার বয়ালদহ এলাকায়।ঘটনায় অভিযুক্ত স্বামীকে গ্রেপ্তার করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ।
পুলিশ জানিয়েছে,আহত স্ত্রীর নাম সুপ্রিয়া বসাক(২০)অন্যদিকে ধৃত ওই স্বামীর নাম ঝন্টু সরকার,পেশায় কৃষক,বাড়ি তপন থানার লস্কর হাট এলাকার পারীলা গ্রামে।
আহত স্ত্রী সুপ্রিয়া বসাকের বাবা সহ পরিবারের লোকজনের অভিযোগ,গত এক বছর আগে তাদের মেয়ের বিয়ে দিয়েছিল তপনের বাসিন্দা ঝন্টু সরকারের সঙ্গে,বিয়ের পর থেকেই জামাই অশান্তি করত তাদের মেয়েকে বলে অভিযোগ।পারিবারিক অশান্তির জেরে তাদের মেয়ে প্রায় চার মাস আগে শ্বশুর বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে আসে।শুক্রবার রাত্রে হঠাৎ জামাই এসে তাদের মেয়েকে গলা টিপে ধরে এবং খুন করার উদ্দেশ্যে মুখে অ্যাসিড ছুঁড়ে মারে বলে অভিযোগ মেয়ের পরিবারের সদস্যদের।ঘটনার পর চিৎকার চেঁচামেচি শুরু হতেই ঘটনার স্থল থেকে পালিয়ে যায় অভিযুক্ত জামাই। পরে সুপ্রিয়া তড়িঘড়ি গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়,ঘটনায় সুপ্রিয়া সঙ্গে তার ভাইও আহত হয়েছে।

এবিষয়ে আহত সুপ্রিয়া র বাবা শম্ভু বসাক ও এক আত্নীয় বিমল বসাক অভিযোগ করে জানিয়েছেন,গত কাল রাত্রে হঠাৎ করে তাদের জামাই বাড়িতে এসে তাদের মেয়েকে গলা টিপে মুখে অ্যাসিড মেরে খুন করার চেষ্টা করে ,পড়ে তাদের মেয়েকে গঙ্গারামপুর সুপার স্পেশালিটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শনিবার পুরো ঘটনা নিয়ে আহত সুপ্রিয়ার পরিবারের সদস্য গঙ্গারামপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করলে অভিযোগের ভিক্তিতে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ তপন থানার সহযোগিতা নিয়ে অভিযুক্ত স্বামী ঝন্টু সরকারকে গ্রেপ্তার করেছেন।

এবিষয়ে গঙ্গারামপুর থানার আইসি পূর্ণেন্দু কুমার কুন্ডু জানিয়েছেন,অভিযোগের ভিক্তিতে ঝন্টুকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।ঘটনার নির্দিষ্ট ধারা দিয়ে আগামীকাল আদালতে পাঠানো হবে।

ঝন্টুকে গ্রেপ্তার করে পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে গঙ্গারামপুর থানার পুলিশ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here